জিমেইলের যে ছয়টি গোপন ফিচার

 গুগলের ইমেল সেবা জিমেইলের ব্যবহারকারী অনেক৷ বিশেষ করে ইয়াহু মেলের বাজার কমার সঙ্গে সঙ্গে জিমেলের বাজার ক্রমশ বিস্তৃত হচ্ছে৷ বিনামূল্যের এই ইমেল সেবার রয়েছে বিশেষ কিছু ফিচার যা আমরা অনেকেই জানি না৷
শেষ মুহূর্তে ইমেল এডিট করতে চালু করুন ‘আনডু সেন্ড’
ইমেল লেখার পর সেন্ড বোতাম চাপার সঙ্গে সঙ্গে বড় কোনো ভুল চোখে পড়েছে? কিংবা মনে হচ্ছে, কোথাও আরেকটু সম্পাদনা করলো ভালো হতো? জিমেল কিন্তু এই সুযোগটা দেয়৷ একটা ইমেল সেন্ড করার পরও সেটাকে কয়েক সেকেন্ডের মধ্যে চাইলে আনডু মানে যাতে গন্তব্যে না পৌঁছায় সেই ব্যবস্থা করা যায়৷ ‘আনডু সেন্ড’ অপশনটি চালু করতে পারবেন জিমেলের জেনারেল সেটিংসে৷
সময় বাঁচাতে চালু করুন ‘ক্যানড রেসপন্সেস’
অনেক সময় দেখা যায়, অধিকাংশক্ষেত্রে আমরা একই ধরনের ইমেল বারবার লিখছি৷ এতে সময় খরচ হয়৷ তার চেয়ে বরং একই ধরনের ইমেল হলে সেটা সেভ করে ‘ক্যানড রেসপন্সেস’ হিসেবে জমা রাখা যায়৷ এরপর পরবর্তীতে সামান্য একটু সম্পাদনা করে একই ইমেল বারবার ব্যবহার করা যায়৷ ‘ক্যানড রেসপন্সেস’ ফিচারটি পাবেন জিমেল>সেটিংস>ল্যাবস> ক্যানড রেসপন্সেস গন্তব্যে৷
জিমেল অফলাইনেও ব্যবহার করা যায়
অনলাইনে থাকা অবস্থায় মনোযোগ দিয়ে কাজ করা অনেক সময় কঠিন হয়ে যায়৷ একটু পরপর নটিফিকেশন্স আর নতুন ইমেলের বিপ শোনা থেকে বিরত থাকতে তাই কেউ কেউ অফলাইন মোডে কাজ করতে চান৷ জিমেল অফলাইন অ্যাপটি তাদের জন্য৷ এই অ্যাপ ব্যবহার করে অফলাইনে থেকেও জিমেলের অনেক ফিচার এমনকি পুরনো ইমেলও দেখা যায়৷ পাশাপাশি নতুন ইমেল বা রিপ্লাই লিখে পরে অনলাইনে গেলে সেগুলো নির্দিষ্ট গন্তব্যে চলে যায়৷
ইনবক্স নটিফিকেশন বন্ধ রাখুন
জিমেলে নতুন কোনো ইমেল আসলেই সেটি মেন্যুবারে ইনবক্স লেখা শব্দের পাশে নম্বর আকারে প্রদর্শন শুরু হয়৷ অনেকর জন্য এটা বিরক্তিকর৷ কেননা, এই নম্বর দেখার পরই মনের মধ্যে ইমেলটি দেখার বাসনা বাড়তে থাকে৷ ফলে কাজে মনোযোগ দেয়া যায় না৷ এমনটা না চাইলে ‘ইমেল পজ্’ অপশনটি চালু করতে পারেন৷
অনাকাঙ্খিত ইমেল বন্ধ করবেন যেভাবে
আপনি হয়ত নিজের প্রয়োজনে কখনো কোনো ইমেল লিস্ট সাব্সক্রাইব করেছিলেন বা আপনার অজান্তেই কেউ হয়ত আপনাকে কোনো লিস্টে ঢুকিয়ে দিয়েছে৷ ফলে না চাইলেও অপ্রয়োজনীয় ইমেলে ভরে যায় আপনার ইনবক্স৷ এরকম পরিস্থিতি থেকে নিস্তার চাইলে ভিজিট করুন আনরোল ডটমি ওয়েবসাইটটি৷ সেখানে সাইন আপের পর অনাকাঙ্খিত ইমেল প্রাপ্তি থেকে নিজেকে নিরাপদ রাখতে পারবেন সহজে৷
টু-ফ্যাক্টর অথেনটিকেশন চালু করুন
অনেকের কাছে জিমেল হচ্ছে তাদের জীবনের প্রতিচ্ছবি৷ শুধু ইমেল নয়, গুরুত্বপূর্ণ বিভিন্ন ফাইল, ছবি, ভিডিও এমনকি ব্যাংকের তথ্যও অনেকে জিমেলে বা গুগলের অন্যান্য সেবায় জমা রাখেন৷ ফলে ইমেলের নিরাপত্তা ব্যবস্থা মজবুত রাখা জরুরি৷ টু-ফ্যাক্টর অথেনটিকেশন ফিচার চালু করলে আপনার ইমেল শুধু পাসওয়ার্ড দিয়ে খোলা সম্ভব হবে না৷ তখন পাসওয়ার্ড এবং মোবাইলে আসা কোড দিয়ে ইমেল চালু করতে হবে যা হ্যাক করা কার্যত অসম্ভব৷


EmoticonEmoticon